নববধূর নতুন জামা ( ফাতেমা রাঃ) এর গল্প

নববধূর নতুন জামা এটি ফাতেমা (রাঃ) এর জীবনের একটি ছোট গল্প। হযরত ফাতেমা (রাঃ)-এর জীবনের ছোট গল্প হলেও এতে আমাদের জন্য রয়েছে একটি শিক্ষণীয় বার্তা।  (The new dress of the bride, the short story of the life of Fatima (R)

নতুন জামা-ফাতেমা (রাঃ) জীবনের ছোট গল্প। 

প্রিয় নবীজির প্রিয় কন্যা ফাতেমাতুজ্জাহরা রাযি.। ক’দিন আগে তাঁর বিয়ে হলো। খুবই সাধারণ ও সাদা সিধে ভাবে। এই বিয়েতে কোনো জাঁকজমক ছিল না, জৌলুস ছিল না। ছিল না নানাবিধ বাহুল্য খরচ। তবে বিয়ে উপলক্ষে তাঁর জন্য তৈরি হয়েছিল, একটি জামা–নতুন জামা।

নতুন জামাজামাটি মাত্র কয়েকদিন গায়ে দেয়া হয়েছে। নতুনত্বের ছাপ এখনো মিলিয়ে যায় নি। ঠিক এরই মধ্যে এক ফকীর এসে একটি জামা চাইল। বলল, মাগো! আমাকে একটি জামা দিন–পুরাতন জামা।

ফকীরের আবদার শুনে ফাতেমা রাযি. চিন্তায় পড়ে গেলেন। ভাবতে লাগলেন–পুরাতন জামাটা দিব? নাকি নতুনটা?

প্রথমে ভাবলেন, সে তো একটি পুরাতন জামা…ই চেয়েছে। সুতরাং পুরাতনটা দিলেই তো চলে। কিন্তু পরক্ষণে আবার ভাবলেন, আল্লাহ পাক তো পবিত্র কুরআনে ইরশাদ করেছেন–

“তোমরা ততক্ষণ পর্যন্ত প্রকৃত সাওয়াব লাভ করতে পারবে না, যতক্ষণ পর্যন্ত তোমাদের প্রিয়বস্তু আল্লাহর রাস্তায় দান না করবে। [সুরাঃ আলে ইমরান, আয়াতঃ ৯২]

একথা মনে হতেই ফকীরকে তিনি নতুন জামাটি দিয়ে দিলেন।

এ সময় তাঁর কাছে বসা ছিল কয়েকজন মহিলা। তারা বলল, ফকীর তো একটি পুরাতন জামা চেয়েছে। সুতরাং তাকে পুরাতন জামাটি দিলেই পারতেন। নতুনটি দিলেন কেন? তাছাড়া নতুন এই জামাটি তো আপনার বিয়েরও স্মৃতি! এমন একটি স্মৃতি আপনি হাতছাড়া করলেন? আশ্চর্য মেয়ে তো আপনি!

ফাতেমা রাযি. বললেন, হ্যাঁ, ফকীর পুরাতন  জামা চেয়েছে। এবং প্রথমে আমি পুরাতন জামা-ই দেওয়ার চিন্তা করেছিলাম। কিন্তু আমার কাছে এটা পছন্দ হয়নি যে, আমি নতুন জামা পড়ব আর ফকীরকে দেব পুরাতন জামা। কারণ, নতুন জামাটিই আমার কাছে বেশি প্রিয়। সেই সাথে এটি আমার বিয়ের স্মারকও বটে! কিন্তু যেহেতু প্রিয়বস্তু আল্লাহর রাস্তায় ব্যয় না করলে প্রকৃত প্রতিদানের ভাগী হওয়া যায় না, তাই আমি ফকীরকে নতুন জামাটিই দিয়ে দিয়েছি।

প্রিয় পাঠক-পাঠিকা! ঘটনাটি ছোট্ট হলেও কত শিক্ষণীয়!! তাই আসুন, আজ থেকে আমরা নিয়ত করি, আমরা আমাদের প্রিয়বস্তুই আল্লাহর রাস্তায় দান করব। মাওলানা রুমি রহ. বলেছেন-

যতো পারো বিলিয়ে দাও খোদার পথে, প্রিয় বস্তু বিসর্জনেই কল্যাণ যত।

হে রাহমান! তুমি আমাদের মালের মমতা কমিয়ে দাও। তোমার পথে প্রিয়বস্তু বিলিয়ে দেওয়ার হিম্মত দাও। আমিন। [সুত্রঃ প্রাগুক্ত]

লেখকঃ মাওলানা মুফীজুল ইসলাম। আদর্শ স্বামী স্ত্রী ১ থেকে। 

এরপর পড়ুন : কল্যাণকামী স্বামী (একজন ভালো স্বামীর গল্প)

প্রিয় রিডার্স, আপনি যদি ফাতেমা (রাঃ) এর জীবনের গল্প পড়তে আগ্রহী হোন তাহলে ফাতেমা (রাঃ)-মের জীবনী বই টি ডাউনলোড করে নিতে পারেন। বইটি সম্পূর্ণ বিনামূল্য পিডিএফ ভার্সন পাবেন আমার বাংলা পোস্ট এ। 

For more update please follow our Facebook, Twitter, Instagram , Linkedin , Pinterest , Tumblr And Youtube channel.

Leave a Comment

error: Content is protected !!