Home / আনন্দ ও বিনোদন / চরম হাসির জোকস ও কৌতুক। শুধুমাত্র বড়দের জন্য ১৮+

চরম হাসির জোকস ও কৌতুক। শুধুমাত্র বড়দের জন্য ১৮+

হাসির কৌতুক-hasir koutukবড়দের হাসির কৌতুক ও জোকস। 

এই হাসির জোকস ও কৌতুক গুলো আপনাকে স্বল্প সময়ের জন্য হলেও হাঁসিতে মাতিয়ে রাখবে। তবে আর দেরি কেনো? পড়া শুরু করুণ… 

০১ পয়সা নেবে কেন?

খদ্দর ও দেহপসারিনী মধ্যে কথা হচ্ছে…

খদ্দরঃ সেক্স করার সময় উভয়ই মজা পাই, তাহলে তুমি আমার কাছ থেকে পয়সা নেবে কেন?

দেহপসারিনীঃ আউটগোয়িং এই চার্জ লাগে, ইনকামিং ফ্রি। ☺️

০২ বান্দর ও ইঁদুর…

মেয়েরা বান্দর পছন্দ করে, কেননা তাঁরা সবসময় কলা খোজে।

ছেলেরা ইন্দুর পছন্দ করে কেননা, তাঁরা সবসময় গর্ত খোজে।

০৩. নগ্ন ছবি…

স্বামী দেশের বাহিরে থাকে। পুরাই মাথা খারাপ অবস্থা। ফোন করে স্ত্রীকে অনেক আদর করল।

আদর করার এক পর্যায়ে স্ত্রীকে বলল একটা ফুল বডির ছবি এমএমএস করে পাঠাতে। ফুল ন্যাকেড!

স্ত্রী স্বামীর কথা মত ছবি পাঠাল। বিছানায় শোয়া।

ফুল ন্যাকেড, হাতে কোন ফোন নেই।

০৪ বান্ধবী…

নতুন বিয়ে হওয়া বান্ধবীকে প্রশ্ন করল শায়লা..

কী রে তোর বর কেমন?

: আর বলিস না, স্বামী আর পেঁচার মাঝে কোন পার্থক্য নেই।

: কেন, এমন কথা বলছিস কেন?

: বলছি কারণ স্বামীরা তাঁদের বউদের সব ভালো জিনিস শুধু রাতের বেলাই খুঁজে পায়। ☺️

০৫ শুরু করার আগে…

অফিস থেকে বাড়ি ফিরে স্বামী বলল, ‘শুরু করার আগে ভাতটা দাও, খেয়ে নিই।’

স্ত্রী ভাত বেড়ে দিল। ভাত খেয়ে স্বামী ডেয়িংরুমের সোফায় বসতে বসতে বলল, ‘শুরু করার আগে এক গ্লাস পানি দাও…বড্ড তেষ্টা পেয়েছে।’

স্ত্রী পানি দিয়ে গেল। পানি খেতে খেতে স্বামী বিছানায় গিয়ে শুয়ে পড়ল। তারপর বলল, ‘শুরু করার আগে এক কাপ চা দাও না আমাকে।’

এইবার স্ত্রী রেগে খেয়ে, ‘অ্যাই, পেয়েছ কী তুমি আমাকে, আমি তোমার চাকর? অফিস থেকে ফিরে একটার পর একটা খালি অর্ডার মেরেই যাচ্ছ…নির্লজ্জ, অসভ্য, ছোটলোক, স্বার্থপর…

স্বামী কানে তুলা গুঁজতে গুঁজতে বলে, ‘এই যে…শুরু হয়ে গেল।’ ☺️☺️☺️☺️☺️

০৬. ভিখারি ও পথচারী

ভিখারিঃ স্যার। ২ টা টাকা দেন।

পথাচারীঃ আরে একটু আগেই তোমাকে ২ টাকা দিলাম।

ভিখারিঃ অতীতের কথা ভুলে যান। অতীত নিয়ে পড়ে আছেন বলেই দেশের এই অবস্থা।

০৭. এখনো কুমারী…

চতুর্থ বিয়ের পর টিনা গেছে হানিমুনে।

প্রথম রাতে স্বামীকে বলছে সে, ‘প্লিজ, ধীরে, আমি কিন্তু এখনো কুমারী।’

টিনার স্বামী ঘাবড়ে গিয়ে বললো, ‘কিন্তু তুমি তো আগে তিনবার বিয়ে করেছো!’

টিনা বললো, ‘হ্যাঁ। কিন্তু শোনোই না। আমার প্রথম স্বামী ছিলেন একজন গাইনোকলজিস্ট, আর তিনি শুধু ওখানে তাকিয়ে থাকতে পছন্দ করতেন। দ্বিতীয় স্বামী ছিলেন একজন সাইকিয়াট্রিস্ট, তিনি শুধু ওখানকার ব্যাপারে কথা বলতে পছন্দ করতেন। আর আমার তৃতীয় স্বামী ছিলেন একজন স্ট্যাম্প কালেক্টর—ওফ, আমি ওঁকে খুবই মিস করি।

০৮. প্রেমিক প্রেমিকা…

প্রেমিক প্রেমিকাকে বলছে,

প্রেমিকঃ আমি না তোমাকে বিয়ে করতে পারবো না।

প্রেমিকাঃ কেন?

প্রেমিকঃ আমার বাসার সবাই আমার এ বিয়ের বিপক্ষে।

প্রেমিকাঃ তোমাদের বাসার কে কে আমাদের বিয়েতে মত দিচ্ছে না?

প্রেমিকঃ আমার বউ আর বাচ্চা।

০৯. উত্তেজিত

এক প্রফেসর তার সাইকোলজি ক্লাসে এক ছাত্রীকে প্রশ্ন করলেন, মানুষের শরীরের কোন অঙ্গটা উত্তেজিত অবস্থায় সাধারণ অবস্থার চেয়ে দশগু বড় হয়ে যায়?

মেয়েটি লজ্জায় লা হয়ে বলল। স্যার এটা আমার পক্ষে বলা সম্ভব না।

তখন একই প্রশ্ন প্রফেসর এক ছাত্রকে করলেন।

ছেলেটি দাঁড়িয়ে বলল, স্যার চোখের মণি।

তখন প্রফেসর মেয়েটিকে বললেন, এক নম্বর কথা, তুমি পড়াশোনায় যথেষ্ট অমনোযোগী, দুই নম্বর কথা তোমার মনমানসিকতা অশ্লীল এবং তিন নম্বর হচ্ছে বিয়ের পর তুমি অবশ্যই হতাশ হবে।

১০. গর্ভবতী পাত্রী

প্রচন্ড অলস এক লোক বড়শিতে মাছ তুলে বসে আছে।

পাশ দিয়ে একজনকে যেতে দেখে কোমল স্বরে বললেন, ভাই মাছটা একটু খুলে দেবেন?

একটু বিরক্ত হয়েও মাছটা খুলে দিলেন লোকটি।

তারপর বললেন, এত অলস আপনি!

এককাজ করেন, একটা বিয়ে করেন।

ছেলেপেলে হলে আপনাকে কাজে সাহায্য করতে পারবে।

জবাবে অলস লোকটা বললো…

ভাই, আপনার জানাশোনা কোনো গর্ভবতী মেয়ে আছে? ☺️☺️☺️☺️☺️

About Rubel

Creative writer, editor & founder at Amar Bangla Post. if you do like my write article, than share my post, and follow me at Facebook, Twitter, Youtube and another social profile.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!