পাজী মেয়ে (Romantic love story)

পাজী মেয়ে- বাংলা রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প

লেখকঃ অভিমানি লেখক

মাঝে মাঝে মনের ভেতর প্রশ্ন জাগে এই মাইয়াটা এতো পাজী কেন?
পাজীর একটা লিমিট আছে! কিন্তুু এই মাইয়ার তো কোন লিমিটই নাই …..
কথায় কথায় খালি শাসন….!
আর এই মেয়েটা আমার মায়ের বান্ধবীর মেয়ে! যখন ওর দুই বছর বয়স তখন ওর মা মারা যায়। আমার মা ওকে আমাদের বাড়িতে নিয়ে আসে! সেই থেকে এখন পর্যন্ত আমাদের বাড়িতেই আছে! আর ওর নাম নুসরাত। নুসরাত আমার থেকে বয়সে তিন বছরের ছোট কিন্তু আমাকে তুই করেই বলে! আর আমার মা টা কে নিজের সম্পত্তি মনে করে! আর মা টাও আমার থেকে ওরে বেশি ভালবাসে….

—-কী রে কৈ যাস …? (নুসরাত)
—-মরতে….! যাবি? (আমি)
—–না আমি এতো তারাতারি মরলে তো তুই পুরাটাই বাদর হয়ে যাবি! কারন মা তো আর তোকে কিছু বলে না! তাই যা বলার আমাকেই বলতে হয়! (নুসরাত)
—- বুঝলাম! এখন আমি যাই?(আমি)
—-আমি কী তোরে আটকিয়ে রাখছি নাকি?
তবে কৈ যাবি জানলে আর মার কাছে বিচার দেয়া লাগতো না..! (নুসরাত)
——বুঝতে পারছি! সর সোজা ভাবে বললেই পারিস যাইতে দিবি না। (আমি)
——এই তো good boy! বাইরে ঐ ফালতু পোলাপাইর সাথে আড্ডা মারতে যাওয়ার দরকার নাই…! (নুসরাত)
—তোর যে বর হবে ওর কপালে কি আছে আল্লাহই ভাল যানে! (আমি)
——আমার বর এর চিন্তা তর করতে হবে না। তুই তোর টা চিন্তা কর! ( নুসরাত)
——আমার টা নিয়ে আমারে চিন্তা করতে কৈ দিলি?
আজ কে এক জনের সাথে দেখা করার কথা ছিল! কিন্তু তুই সব কিছুতে পানি দিয়া দিলি…….. (আমি)
——–আহারে…. তোর চিন্তা তো আমি জানি! তোর চিন্তা তো খালি ঐ ফালতু মেয়ে গুলার পেছনে দোউরানো….(নুসরাত)
মন খারাপ করে বাসায়ই থাকতে হল! ডাইনি একটা আমার সব কাজে ওর নাক গলাবে….
বিকাল বেলা আম্মু এসে বলতেছে ঐ নুসরাত কে নিয়ে একটু বাজারে যেতে হবে তোর! ওর নাকি মাথা ব্যাথা তাই ওর হালকা ঔষদ নিয়ে আসিস আর সাথে কিছু কেনা কাটা করতে হবে কালকে মেহমান আসবে….
যেই বলা সেই কাজ ডাইনি টা কে বাজরে নিয়ে যেতে হবে….
——তোর মাথা ব্যাথা কমছে নাকি ঔষদ কিনা লাগবে…? (আমি)
—–তুই জানিস আজকে কিসের কেনাকাটা করতে আসছিস? (নুসরাত)
——না…..! (আমি)
——কালকে আমাকে ছেলে পক্ষের লোক দেখতে আসবে…. (নুসরাত)
বুকের মাঝে একটা ব্যাথা অনুভব করলাম, তার পরে ও হাসি দিয়ে —–
ভাল তো আমারে আর জ্বালাইতে পারবি না! তর বর কে জ্বালাবি…. (আমি)
—-সত্যি তোকে অনেক জ্বালাই আমি….? (নুসরাত)
আমি আর কথা বলতে পারলাম না কেনা কাটা শেষ করে দ্রুত বাড়িতে ফিরলাম। তার পরের দিন ছেলে পক্ষের লোক নুসরাত কে দেখতে আসলো। তাদের নুসরাত কে দেখে মোটামুটি পছন্দ ও হয়ে গেল…..!
তারা পাকা কথা বলার জন্যে তারিখ জানতে চেয়ে চলে গেলো তার পরে নুসরাত এসে আমার সামনে এসে হাজীর! তার পর আমার গালে একটা আঘাত এবং কানে একটা জোরে আওয়াজ পেলাম ….
বুঝলাম চর খাইছি আর এই টা নুসরাতই দিছে….
—-চর মারলি কেন? (গালে হাত দিয়ে আমি )
—গাধা একটা! (কান্না চোখে নুসরাত )
বলেই চলে গেল!
বিকাল বেলা ছাদে উঠার পরে দেখলাম। ছাদের এক কোনে বসে নুসরাত কাদতেছে…
—কী রে কাদিস কেন? চর মারলি আমারে আবার নিজে কাদতেছিস কেন!
—-কারন ভালোবাসি তোকে! ( রাগি নুসরাত)
—–বলছিস কখনো আমারে? (আমি)
—– গাধা…! মেয়েরা কখনো বলে? তুই তো জানতি আমি তোকে ভালবাসি! তুই তো জিজ্ঞেস করতে পারতি (অভিমানি নুসরাত)
—তা পারতাম! তবে ভয় তে বলি নাই! যদি আম্মুর কাছে বিচার দিতি তাই! (আমি)
—–বিয়ে করবি আমায়? (মায়া মাখা নুসরাত)
—– করতে পারি যদি আপনি করে বলিস….
——বিয়ে করবেন আমায়…! (অবুঝ নুসরাত)
—- সপ্নের পরি জদি বাস্তবে প্রোপজ করে তাকে না করা কী সম্ভব?

এই রোমান্টিক গল্পটি লিখেছেন : অভিমানি লেখক। 

আরও বাংলা ভালোবাসা ও রোমান্টিক প্রেমের গল্প…

01. পিচ্ছি বউ -স্বামী স্ত্রীর রোমান্টিক প্রেমের গল্প। পর্ব ১-৫

02. বউ পেটানোর মজা! আলোকিত মানুষ চাই- পর্ব ৪

03. সর্বনাশা প্রেম (প্রেমের গল্প-কাহিনী)

04. সস্তা মেয়ে (প্রেমের গল্প) | Short love story

05. নায়িকা হওয়া পেছনের গল্প ( শয়তানের ফাঁদ ৪)

06. পরকীয়া! তুমিতো বেজায় দুষ্টু! (পরকীয়া প্রেমের অণুগল্প )

07. ফুলশয্যা (স্বামী স্ত্রীর ফুলশয্যা রাতের গল্প ৩)

08. গল্প বুড়ি : একজন নারীর বিয়ের জীবনের গল্প

09. ছেঁড়া ব্লাউজ (নারী নিগ্রহের গল্প)। মামুন মুনতাসির

10. বিধবা মেয়ে : বিধবা মেয়ের বিয়ের গল্প-পর্ব ২

প্রিয় পাঠক পাঠিকা, আশা করি অভিমানি লেখকের পাজী মেয়ে, রোমান্টিক ভালোবাসার গল্পটি পড়ে আপনার ভালো লেগেছে ও এটি উপভোগ করেছেন। পাজী মেয়ে গল্পটি পড়ে কেমন লেগেছে তা আমাদেরকে জানাতে কমেন্ট করুন।

For more update please follow our Facebook, Twitter, Instagram , Linkedin , Pinterest , Tumblr And Youtube channel.

2 thoughts on “পাজী মেয়ে (Romantic love story)”

Leave a Comment